ABOUT

লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড

কর্পোরেট প্রোফাইল

লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড দুই দশক আগে ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক হতে আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইন-১৯৯৩ এর আওতায় লাইসেন্স নিয়ে বহুজাতিক সহযোগিতার সাথে একটি যৌথ উদ্যোগের আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে এর যাত্রা শুরু করে। এখন লঙ্কাবাংলা একীভূত আর্থিক সেবার ক্ষেত্রে দেশের অগ্রবর্তী সেবাদাতা যার প্রদত্ত সেবার মধ্যে রয়েছে কর্পোরেট আর্থিক সেবা, রিটেইল আর্থিক সেবা, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা আর্থিক সেবা, স্টক ব্রোকিং, কর্পোরেট উপদেষ্টা এবং সম্পদ ব্যবস্থাপনা সেবা।

আমরা সম্প্রতিই ভোক্তাসেবা এবং অভিজ্ঞতাকে নতুন মাত্রায় নিয়ে যাওয়ার সক্ষমতা সৃষ্টি করেছি ব্যবসা পদ্ধতির পুনঃনিরুপনের মাধ্যমে। প্রতিষ্ঠানটি এখন কেন্দ্রীভূত প্রশাসনিক কাঠামোর মাধ্যমে সংযুক্ত যা পরিচালিত হয় অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায়। লঙ্কাবাংলা ব্যবসাক্ষেত্রে অনেক বিশাল সীমানা নিয়ে কাজ করে যার দেশের সব বৃহৎ ব্যবসাকেন্দ্রই অন্তর্ভুক্ত।

সবচেয়ে বিশাল পরিসরের পণ্য এবং সেবা প্রদানের পাশাপাশি আমরাই একমাত্র আর্থিক প্রতিষ্ঠান যারা ক্রেডিট কার্ড (মাস্টারকার্ড এবং ভিসা) পরিচালনা করি এবং একইসাথে বিভিন্ন ব্যাংককে তৃতীয় পাক্ষিক কার্ড প্রক্রিয়াজাতকরণের সেবা প্রদান করে থাকি।

লংকাবাংলা বাংলাদেশে মূলধন বাজারের সেবার দিক থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছে এবং বাজারকে কার্যক্ষম, স্পন্দনশীল এবং স্বচ্ছ করে তোলার ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ প্রচেষ্টা দিয়ে যাচ্ছে। আমাদের সম্পূরক প্রতিষ্ঠান লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ এর মাধ্যমে আমরা সর্বোন্নত মানের ব্রোকিং সেবা প্রদান করি এবং অত্যাধুনিক লেনদেন, শীর্ষস্থানীয় গবেষণা ও ভোক্তাসেবা প্রদানের মাধ্যমে শিল্পের নেতৃত্ব দিচ্ছি।

আমাদের আরেকটি সম্পূরক, লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় বিনিয়োগ ব্যাংক যা কর্পোরেট উপদেশক, ইস্যু ব্যবস্থাপনা এবং পোর্টফোলিও ব্যবস্থাপনা প্রভৃতি সেবা প্রদান করে থাকে। তদুপরি, লংকাবাংলা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানী লিমিটেড পেশাদারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা সেবা প্রদান করে যাচ্ছে।

টেকসই ব্যবসার উদ্দেশ্য নিয়ে লংকাবাংলা সর্বকালীন চেষ্টাই হচ্ছে জনগন, ভোক্তা, শেয়ারহোল্ডার এবং সমাজকে মানের স্থিরতা প্রদান করা। এছাড়াও আরও কিছু মূল বিভাগ উদ্বর্তপত্র ব্যবস্থাপনা, বিভিন্ন সিদ্ধান্তগ্রহণে সহায়তা প্রদান, আইটি অবকাঠামো নির্মান, পরিচালনা ও রক্ষনাবেক্ষন এবং যথাযথ প্রশিক্ষণর মাধ্যমে মানবসম্পদ হতে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা আদায়ের মাধ্যমে কৌশলগত অগ্রাধিকার নির্ধারনে নিয়োজিত আছে।

আমরা ইন্সটিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্টস অফ বাংলাদেশ(আইসিএবি) কাছ থেকে গত কয়েকবছর ধরে সেরা প্রকাশিত অ্যাকাউন্ট এবং রিপোর্টের জন্য জাতীয় পুরস্কার পেয়ে আসছি। একই সাথে “ক্যাটেগরি জয়ী- আর্থিক সেবা ক্ষেত্র”, “সেরা উপস্থাপিত বার্ষিক রিপোর্ট” এবং “কর্পোরেট গভর্নেন্স ডিসক্লোজার এর জন্য সার্ক বার্ষিকী পুরস্কার ২০১৪” সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অফ অ্যাকউন্টেন্টস (সাফা, সার্কের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান)। নিঃসন্দেহে ইহা এক সমুজ্জ্বল অর্জন এবং এটা নৈতিক চর্চা, সত্য সম্মতি এবং প্রতিভাসম্পন্ন একটি দলের কাজের প্রতিফলন।

লংকাবাংলা সকল অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে অংশগ্রহণমূলক ব্যবস্থাপনা এবং শিল্পের সর্বোত্তম চর্চা অনুসরণ করে। শেয়ারহোল্ডারদের মূল্যবৃদ্ধি লংকাবাংলায় আমাদের জন্য একটি স্বাভাবিক পরিচালনা শক্তি। আমরা অগ্রগতির সাথে সাথে দীর্ঘস্থায়ী স্থায়ীত্বের প্রচেষ্টার দ্বারা পরিবেশগত ও সামাজিক মূল্যবোধ তৈরি করছি। উচ্চ নৈতিক মান, শাসন এবং স্বচ্ছতা গ্রহণ করার মাধ্যমে আমরা বড় হওয়ার স্বপ্ন দেখি। আমাদের তত্ত্ব খুবই সরল : আমরা আমাদের গ্রাহকদের উন্নতির অংশীদার হওয়ার মাধ্যমে আমাদের সাফল্যের চিত্রায়ন করি এবং আমরা সাধারন মানুষের জীবন পরিবর্তন করতে বদ্ধপরিকর।